শনিবার   ০৩ ডিসেম্বর ২০২২   অগ্রাহায়ণ ১৮ ১৪২৯  

পুতিনের পতন কী শুরু?

কুষ্টিয়ার বার্তা

প্রকাশিত : ০৮:৩৯ এএম, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২২ শনিবার

চলতি বছরের ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে বিশেষ অভিযান শুরু করে রাশিয়া। অভিযানের পর থেকে নানা নাটকীয়তা চলে যুদ্ধে। যুদ্ধ বিশ্লেষকরা অনেক পূর্বাভাস দেওয়ার পর মিথ্যে হতো যুদ্ধের গতিপথ। তবে মাত্র ১৫ দিনে ইউক্রেনের সামরিক সেনাদের পাল্টা হামলায় রুশ সেনাদের চরম নাটকীয় বিপর্যয় ঘটছে। এখন প্রশ্ন জাগছে পুতিনের পতন কী শুরু!

এতদিন অনেক মার্কিন কর্মকর্তারা ইউক্রেন যুদ্ধ নিয়ে পূর্বাভাস দেওয়ার ক্ষেত্রে মুখে কুলুপ এঁটেছিলেন। এখন নিজেদের সেই অবস্থান থেকে সরে এসে নতুন পূর্বাভাস দিচ্ছেন। তাদের ভাষ্য, ইউক্রেনে রুশ বাহিনীর পরাজয় পুতিনের পতনের শুরু মাত্র।

তিন মার্কিন কর্মকর্তা বলেন, ইউক্রেনের পাল্টা আক্রমণের পর রাশিয়ায় নিজের অবস্থান নিয়ে গুরুতর সংকটে পড়েছেন পুতিন। যুদ্ধের ব্যয় বৃদ্ধি, সেনাদের প্রাণহানি ও নিষেধাজ্ঞার ফলে অর্থনৈতিক দুর্ভোগের কারণে ক্ষুব্ধ বেশ কয়েকজন রুশ রাজনীতিক ও সোশাল মিডিয়া সেলিব্রেটি। তারা এখন প্রকাশ্যে সমালোচনা করতে শুরু করেছেন পুতিনের।

এক উচ্চ পদস্থ মার্কিন গোয়েন্দা কর্মকর্তা বলেন, ক্রেমলিনপন্থী কণ্ঠস্বর, এমনকি রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম– ই প্রথমবার ইউক্রেনে যুদ্ধ নিয়ে প্রশ্ন তুলছে। তারা পুতিনকে কোনঠাসা করছেন।

মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের দ্বিতীয় আরেকটি সূত্র জানায়, ইউক্রেনে রাশিয়ার পরাজয় নিশ্চিত হওয়ার বিষয়টি গত সপ্তাহে মেনে নিয়েছে সন্দেহবাদীরা। বলা হচ্ছে- জনবল ও সরঞ্জামের নিরিখে অভিযান শেষ।

পেন্টাগনের এক সিনিয়র সামরিক কর্মকর্তা বলেন, আমাদের পর্যালোচনা হচ্ছে- ইউক্রেনের খারকিভে দখলকৃত ভূখণ্ড ছেড়ে দিয়ে সেনা প্রত্যাহার করেছে রাশিয়া। তবে তিনি সতর্ক করে বলছেন, কামান ও বিমান হামলার মাধ্যমে ডনেস্ক ও পশ্চিম খেরসনেআক্রমণ অব্যাহত রেখেছে রাশিয়া।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা বলেন, এখন কঠিন অংশ আসছে। সব নজর পুতিনের ওপর। তিনি কি ক্ষমতায় থাকার জন্য রাশিয়াকে ধ্বংস করবেন? নাকি তাকে ধ্বংস করবে রাশিয়া?