বুধবার   ১০ আগস্ট ২০২২   শ্রাবণ ২৬ ১৪২৯  

রাসায়নিকমুক্ত মিষ্টি আম চেনার উপায়

লাইফষ্টাইল ডেস্ক

কুষ্টিয়ার বার্তা

প্রকাশিত : ০৩:২৬ পিএম, ১৫ মে ২০২২ রোববার

আমের শহর রাজশাহীতে আম পাড়া শুরু হয়েছে। সুস্বাদু মৌসুমি ফল আমের সুঘ্রান চারদিকে ছড়িয়ে পরায় কমবেশি সবাই কিনছে আম। কিন্তু অধিকাংশ ক্রেতাই নিজের অজান্তে কিনে ফেলছেন রাসায়নিকযুক্ত অপরিপক্ক আম। একদিকে স্বাদ গন্ধহীন আম কিনলে খাওয়াটা হয়ে যায় পণ্ড অন্যদিকে আর্থিক লোকসান। তাই ভালো আম চেনার উপায় জানতে হবে। ভালো ও মিষ্টি আমের বৈশিষ্ট্যগুলো কী রকম, জেনে নেওয়া যাক।

আম কেনার পর কিছুক্ষণ রেখে দিন। গাছ পাকা আম হলে গন্ধে মৌ মৌ করবে চারপাশ। ওষুধ দেওয়া আমে এই মিষ্টি গন্ধ হবে না। আর পরিপক্ক আম চেনার সবচেয়ে সহজ উপায় হলো পাকা আম সাধারণ হলুদাভ হয় এবং পানিতে রাখলে ডুবে যায়।

লক্ষ্য করুন যে স্থান থেকে আম কিনছেন সেখানে রাখা আমের গায়ে মাছি বসছে কিনা। কেননা ফরমালিন যুক্ত আমে মাছি বসবে না। স্বাদ গন্ধহীন আম কিনলে খাওয়াটা হয়ে যায় পণ্ড অন্যদিকে আর্থিক লোকসান

গাছ পাকা আমের শরীরে এক রকম সাদাটে ভাব থাকে। কিন্তু ফরমালিন বা অন্য রাসায়নিকে চুবানো আম হবে ঝকঝকে সুন্দর। কারবাইড বা অন্য কিছু দিয়ে পাকানো আমের শরীর হয় মোলায়েম, দাগহীন ও আগাগোড়া হলদেটে। কারণ, আমগুলো কাঁচা অবস্থাতেই পেড়ে ফেলে ওষুধ দিয়ে পাকানো হয়। অন্যদিকে, গাছ পাকা আমের দাগ পড়বেই।

আম নাকের কাছে নিয়ে ভালো করে শুঁকে তারপর কিনবেন। গাছ পাকা আম হলে অবশ্যই বোটার কাছাকাছি ঘ্রাণ থাকবে। ওষুধ দেওয়া আমে মিষ্টি গন্ধ তো থাকবেই না, উল্টো বিচ্ছিরি গন্ধ বের হবে। আম খাওয়ার সময় যদি টক, মিষ্টি কোনো স্বাদ না পেয়ে পানসে স্বাদ পান, তাহলে বুঝবেন আমে ওষুধ দেওয়া।
এবড়ো-থেবড়ো নয় এমন আম কিনুন। যে আমের খোসা কুঁচকে গেছে সেটি কিনবেন না। হিমসাগর ছাড়াও নানা জাতের আম আছে, পাকলেও সবুজ থাকে এবং মিষ্টি হয়। ওষুধ দিয়ে পাকানো হলে আমের শরীর হয় মসৃণ ও সুন্দর।

গাছ পাকা আমের শরীরে এক রকম সাদাটে ভাব থাকে। কিন্তু ফরমালিন বা অন্য রাসায়নিকে চুবানো আম হবে ঝকঝকে সুন্দর
যে আম কিনবেন সেখান থেকে একটি আম নিয়ে আঙুলের মাথা দিয়ে হালকা টিপে দেখবেন। আম যদি পাকা হয় তবে সেটি নরম হবে। যদি আঙুলের চাপে গর্ত হয়ে যায় তাহলে কিনবেন না। কারণ, আম আগেই বেশি পেকে গেছে। যা খেতে একদমই স্বাদ লাগে না।

প্রাকৃতিকভাবে পাকা আম কাটলে এর ভেতরের শাসটি হবে লালচে হলুদ রঙের কিন্তু ফরমালিন যুক্ত আমের ভেতরের অংশটি হবে হালকা অথবা গাঢ় হলুদ রঙের। এর মানে হলো বাইরে থেকে আমটি পাকা দেখালেও ভেতরটি পাকা নয়।

প্রাকৃতিকভাবে পাকা আম বেশ মিষ্টি হয় এবং এতে অনেক বেশি রস থাকে। কিন্তু ফরমালিনযুক্ত আমে রস অনেক কম হয়। ভেতরটা পাকা থাকে ঠিকই কিন্তু রস কম পাওয়া যায়।