মঙ্গলবার   ১৭ মে ২০২২   জ্যৈষ্ঠ ২ ১৪২৯   ১৫ শাওয়াল ১৪৪৩

 কুষ্টিয়ার  বার্তা
সর্বশেষ:
চুয়াডাঙ্গায় ভুয়া ডাক্তারকে দেড় লাখ টাকা জরিমানা পেঁয়াজের উৎপাদন বেড়েছে ২ লাখ ৭৯ হাজার টন এবার হজ কার্যক্রম পরিচালনার অনুমতি পেল ৭৮০ এজেন্সি আগামী দুই বছরের মধ্যে পৃথিবী হবে ডাটানির্ভর ডিজিটালের পরবর্তী পদক্ষেপ স্মার্ট বাংলাদেশ
৬৪৩

বিশ্ব সেরা ১০০০ বিশ্ববিদ্যালয়ে বাংলাদেশের ২

নিউজ ডেস্ক:

প্রকাশিত: ১০ এপ্রিল ২০১৯  

বিশ্বের বিভিন্ন সংস্থা প্রতি বছর বিশ্বব্যাপী বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের মান যাচাই-বাচাই করে একটা র‌্যাঙ্কিং প্রকাশ করে থাকে। এই সংস্থাগুলোর মধ্যে Quacquarelli Symonds (QS) অন্যতম। যারা প্রতি বছর বিভিন্ন মানের উপর ভিওি করে বিশ্বজুড়ে সেরা ১০০০ টি  বিশ্ববিদ্যালয়ের তালিকা প্রকাশ করে।

QS এর ওয়াল্ড ইউনিভার্সিটি র‌্যাঙ্কিং ২০১৯ সালের হিসেব অনুযায়ী বাংলাদেশের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর অবস্থান সেরা ১০০ তো দূরের কথা সেরা ৫০০তেও খুঁজে পাওয়া যাবে না। তবে হ্যাঁ, তালিকাটি আরো একটু বড় করে ১০০০ পর্যন্ত নিলে বাংলাদেশের দুটি বিশ্ববিদ্যালয় খুজেঁ পাওয়া যাবে তাও অবস্থান একেবারে তলানিতে।

বিশ্বের সেরা ১০ বিশ্ববিদ্যালয়:

 

বিশ্বের সেরা দশটি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রেরই আছে ৫ টি বিশ্ববিদ্যালয়। যেগুলো হল: ম্যাসাসুসেটস ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজি(১ম), স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়(২য়), হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়(৩য়), ক্যালিফোর্নিয়া ইন্সটিটিউট অব টেকনোলজি(৪র্থ), শিকাগো বিশ্ববিদ্যালয়(৯ম)।

অন্যদিকে যুক্তরাজ্যের আছে চারটি বিশ্ববিদ্যালয়: অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়(৫ম), কেমব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়(৬ষ্ঠ), ইম্পেরিয়াল কলেজ লন্ডন(৮ম), ইউনিভার্সিটি কলেজ লন্ডন(১০ম)।

যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্য ছাড়া সেরা দশে আছে একমাত্র বিশ্ববিদ্যালয় সুইজারল্যান্ডের সুইস ফেডারেল ইনস্টিটিউট অব টেকনলজি(৭ম)।

বাংলাদেশের সেরা দুই বিশ্ববিদ্যালয়:

QS এর ওয়াল্ড ইউনিভার্সিটি র‌্যাঙ্কিং ২০১৯ এর সেরা ১০০০ বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে স্থান পেয়েছে বাংলাদেশের দুইটি বিশ্ববিদ্যালয়। 
বিশ্ববিদ্যালয়গুলো হচ্ছে : বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়:

প্রাচ্যের অক্সফোর্ড খ্যাত বাংলাদেশের এই শ্রেষ্ঠ বিদ্যাপীঠ প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল ১৯২১ সালে। আর সে সময় থেকে শুরু করে আজ পর্যন্ত বাংলাদেশের প্রতিটি সেক্টরের নাম উজ্জ্বল করে আসছে। বাংলাদেশের অনেক বিখ্যাত ব্যক্তি আছেন যারা এই বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ছিলেন।

কিন্তু বৈশ্বিকভাবে বিবেচনা করলে শিক্ষার মান এবং শিক্ষা পদ্ধতি দুটিতেই ব্যাপক পিছিয়ে আছে বাংলাদেশের এই শ্রেষ্ঠ বিদ্যাপীঠ।

২০১৯ সালের QS র‌্যাঙ্কিং অনুযায়ী ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অবস্থান ৯৬৯ তম। ২০১৮ সালের QS র‌্যাঙ্কিং অনুযায়ী যেখানে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অবস্থান ছিল ৮৭৮।

বুয়েট:

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট) ১৯৬২ সালের ১ জুন একটি পূর্ণাঙ্গ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে যাত্রা আরম্ভ করে। তখন এর নাম ছিল পূর্ব পাকিস্তান প্রকৌশল ও কারিগরী বিশ্ববিদ্যালয়। ১৯৭১ সালে বাংলাদেশের স্বাধীনতার পরে এর নাম পরিবর্তন করে রাখা হয় বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়। বাংলাদেশের প্রকৌশল শিক্ষাকে এগিয়ে নিতে বুয়েটের অবদান অনস্বীকার্য। কিন্তু বৈশ্বিক দিক বিবেচনা করলে বুয়েট এখনো অনেক পিছিয়ে আছে। প্রথমবারের মত QS র‌্যাঙ্কিং-এ স্থান করে নেয়া বাংলাদেশের এই বিশ্ববিদ্যালয়ের অবস্থান হল ৮২১।

বিভিন্ন মহাদেশে সেরা বিশ্ববিদ্যালয়ের সংখ্যা:

সেরা ১০০০ বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে শুধুমাত্র ইউরোপ মহাদেশের আছে ৩৮১ টি বিশ্ববিদ্যালয়, এশিয়ায় ২৮১ টি, উওর আমেরিকায়  ১৮৩ টি, দক্ষিণ আমেরিকায় ৯৩ টি, ওশানিয়ায় ৪৫ টি এবং আফ্রিকা মহাদেশের আছে ১৭ টি বিশ্ববিদ্যালয়।

 কুষ্টিয়ার  বার্তা
 কুষ্টিয়ার  বার্তা
এই বিভাগের আরো খবর