রোববার   ০৯ আগস্ট ২০২০   শ্রাবণ ২৪ ১৪২৭   ১৯ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

 কুষ্টিয়ার  বার্তা

সামাজিক দূরত্ব মেনে সারাদেশে ঈদ জামাত সম্পন্ন

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১ আগস্ট ২০২০  

সামাজিক দূরত্ব মেনে সারাদেশে ঈদ জামাত সম্পন্ন হয়েছে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে প্রতিটি মসজিদে নামাজ আদায় করেন মুসল্লিরা। সকাল সোয়া ৭টা থেকে ১০টা পর্যন্ত মসজিদে মসজিদে এসব ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হয়।

রংপুর মহানগরীসহ জেলার আট উপজেলার প্রায় ছয় হাজার মসজিদে পবিত্র ঈদুল আজহার জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে। সকাল আটটায় রংপুর নগরীর কোর্ট মসজিদে অনুষ্ঠিত ঈদের জামাতে রংপুর বিভাগীয় কমিশনার কেএম তরিকুল ইসলাম, সিটি মেয়র মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা, ডিসি আসিব আহসানসহ প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা অংশ নেন।

কেরামতিয়া জামে মসজিদে সকাল সাড়ে ৮টায় ও সকাল সাড়ে ৯টা, পুলিশ লাইন্স জামে মসজিদে সকাল ৭টা ৪৫ মিনিটে ও সাড়ে ৮টায়, শাপলা চত্বর আশরাফিয়া জামে মসজিদে সকাল সাড়ে ৮টায়, জুম্মপাড়া করিমিয়া মাদ্রাসায় সকাল সোয়া ৭টায় ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়।

এমপি ও বিরোধি দলীয় চিফ হুইপ মসিউর রহমান রাঙ্গা গঙ্গাচড়া উপজেলা মসজিদে ঈদের নামাজ আদায় করেন। বদরগঞ্জের চৌধুরিপাড়ায় নিজ এলাকায় নামাজ আদায় করেন রংপুর-২ (বদরগঞ্জ-তারাগঞ্জ) আসনের এমপি আবুল কালাম মোহাম্মদ আহসানুল হক চৌধুরী ডিউক।

ঈদ জামাত

ত্যাগের মহিমায় পশু কোরবানীর মধ্য দিয়ে ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যে ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে নোয়াখালীতে পবিত্র ঈদুল আযহা পালিত হয়েছে। নোয়াখালীর এসপি আলমগীর হোসেন জানান, জেলার নয় উপজেলায় চার হাজার ৩৪৯টি মসজিদে সুশৃঙ্খলভাবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঈদের নামাজ আদায় করেন মুসল্লিরা। নামাজ শেষে পশু কোরবানির মাধ্যমে আল্লাহর সন্তুষ্টি খুঁজেছেন মুসলমানরা।

বিভাগীয় শহর বরিশালে পবিত্র ঈদ-উল-আযহা উপলক্ষে প্রাণঘাতী কভিড-১৯ ভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধ ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে প্রথমবারের মত বরিশাল হেমায়েত উদ্দিন কেন্দ্রীয় ঈদগাহ ময়দানের বাইরে নগরীর শতাধিক মসজিদে করোনা মহামারী থেকে রক্ষা করার প্রার্থনা ও শোকাবিহুল মাসে জাতীর জনক বঙ্গবন্ধু এবং ১৫ আগস্ট নিহত শহীদদের রুহের মাগফেরাত সহ বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা বাস্তবায়িত করার পাশাপাশ দেশবাসির মঙ্গল কামনা করে প্রার্থনা করা হয়।

শনিবার সকাল ৮টায় বরিশাল কালেক্টরেট মসজিদে ঈদ-উল-আযহার প্রধান নামাজের জামাত অনুষ্ঠিত হয়। এখানে নামাজের মোনাজাতের পূর্বে বরিশাল করোনা প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি ও জেলা প্রশাসক এস.এম অজিয়র রহমান বলেন, আজ পবিত্র ঈদ-উল-আযহা সর্বোচ্চ ত্যাগের দিন। অপরদিকে এই শোকের মাসে আমরা যেন সবাই স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলি।

এছাড়া কালেক্টরেট মসজিদে সকাল ৯টায় দ্বিতীয় ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হয়। অন্যদিকে পুলিশ লাইনস্থ জামে মসজিদেও একই সময়ে ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হয়। এখানে বরিশাল রেঞ্জ ডিআইজি শফিকুল ইসলাম,পুলিশ কমিশনার মো. শাহাবুদ্দিন খান, এসপি মো. সাইফুল ইসলামসহ নগর পুলিশ ও জেলা পুলিশের বিভিন্ন প্রর্যায়ের কর্মকর্তারা ঈদের নামাজে অংশ গ্রহণকরে।

এছাড়া এবার নগরীর একাধিক মসজিদে ২টি থেকে ৪টি নামাজের জামাত অনুষ্ঠিত হয়। চকবাজারস্থ জামে এবায়েদুল্লাহ মসজিদে চারটি ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হয়। অন্যদিকে জামে কসাই মসজিদ, বায়তুল মোকাররম মসজিদে ২টি করে নামাজ অনুষ্ঠিত হয়।

অপরদিকে নগরীর বিভিন্ন এলাকার শতাধিক মসজিদে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হয়। এদিকে বরিশাল সদর উপজেলার চরমোনাই দরবার শরীফে সর্ববৃহৎ ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হয়।

বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনা আর আনন্দঘন পরিবেশের মধ্য দিয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় পবিত্র ঈদুল আজহা পালিত হচ্ছে। করোনাকালে স্বাস্থ্যবিধি মেনে নিরাপদ দূরত্ব বজায় রেখে সকাল ৭টায় ঈদের প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে জেলা কোন্দ্রীয় জামে মসজিদে। সেখানে ঈদের নামাজ আদায় করেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৩ (সদর-বিজয়নগর) আসনের এমপি ও বেসামরিক বিমান ও পর্যটন মন্ত্রণালয় সর্ম্পকিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি র.আ.ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী। 

ঈদের প্রধান জামাতে ইমামতি করেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া জামিয়া ইউনুছিয়া মাদ্রাসার সিনিয়র মুয়াদ্দিস মাওলানা নোমান আল হাবিবি। ঈদের নামাজ আদায় শেষে দেশ জাতি এবং মুসলিম উম্মার জন্যে বিশেষ মোনাজাত করা হয়।

ঈদ জামাত

এছাড়া সকাল ৭ টা থেকে ৮টার মধ্যে, টেংকেরপাড় জামে মসজিদ, জেলা জামিয়া ইউনুছিয়া ইসলামীয়া মাদ্রাসা মসজিদ, পীরবাড়ী দারুল ওলুম ইসলামীয়া মাদ্রাসা মসজিদ, মেড্ডা বাসষ্ট্যান্ড জামে মসজিদ, ভাদুঘর শাহী জামে মসজিদ, শেরপুর জামে মসজিদ, ব্রাহ্মণবাড়িয়া ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট সদর হাসপাতাল জামে মসজিদ সহ বিভিন্ন মসজিদে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঈদের নামাজ অনুষ্ঠিত হয়।

নামাজ শেষে মহামারি করোনাভাইরাসের সংক্রমণ থেকে মুক্তিসহ দেশে শান্তি-সম্মৃদ্ধি ও বিশ্ব মুসলিম উম্মাহর সম্প্রীতি কামনায় মোনাজাত করা হয়।

 কুষ্টিয়ার  বার্তা
 কুষ্টিয়ার  বার্তা
এই বিভাগের আরো খবর