সোমবার   ১৮ জানুয়ারি ২০২১   মাঘ ৪ ১৪২৭   ০৪ জমাদিউস সানি ১৪৪২

 কুষ্টিয়ার  বার্তা
সর্বশেষ:
চুয়াডাঙ্গায় সুইসাইড নোট লিখে এক যুবকের আত্মহত্যা চুয়াডাঙ্গায় ফের শৈত্যপ্রবাহ ইবির প্রশাসনিক পদে নতুন মুখ মুজিবনগর টেকনিক্যাল স্কুল অ্যান্ড কলেজের নতুন ভবনের উদ্বোধন কুষ্টিয়ায় আরও ২ জনের করোনা শনাক্ত
১৪

যে কারণে ঝুলে থাকবে মুমিনের রূহ

প্রকাশিত: ৯ জানুয়ারি ২০২১  

প্রয়োজন পূরণে ঋণ একটি লেন-দেন প্রক্রিয়া। কুরআন সুন্নায় উত্তম ঋণ আদান-প্রদানে উৎসাহ দেয়া হয়েছে। কিন্তু যারা ঋণ নেয়ার পর তা পরিশোধে নানা অজুহাত কিংবা তালবাহানা করে থাকে, তারা কি জানেন যে, ঋণ পরিশোধ না করার পরিণতি কত ভয়াবহ? এ সম্পর্কে বিশ্বনবি কী বলেছেন? 

হ্যাঁ, যথা সময়ে ঋণ পরিশোধ না করা ইসলামে মারাত্মক অপরাধ। ঋণ নিয়ে তালবাহানা করা কিংবা পরিশোধ না করা ব্যক্তির রূহ ঝুলন্ত অবস্থায় থাকে। আর ঋণ দেয়ার ইচ্ছা না থাকলে তার নেকগুলো ঋণদাতার আমলনামায় যুক্ত হয়ে যায়। হাদিসের বর্ণনায় তা সুস্পষ্ট।

– হজরত আবু হুরায়রা রাদিয়াল্লাহু আনহু বর্ণনা করেন, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, মুমিন ব্যক্তির রূহ তার ঋণের কারণে ঝুলন্ত অবস্থায় থাকে; যতক্ষণ না পর্যন্ত তা পরিশোধ করা হয়।’ (ইবনে মাজাহ, তিরমিজি, মুসনাদে আহমাদ)

– হজরত মুয়াবিয়া রাদিয়াল্লাহু আনহুর খাদেম হজরত আবুল কাসেম রাদিয়াল্লাহু আনহু বর্ণনা করেন, যে ব্যক্তি ঋণ গ্রহণ করে কিন্তু সে ঋণ পরিশোধ করার ইচ্ছা পোষণ করে না, পরিশোধের জন্য তৎপর হয় না; তার নেকিসমূহ ঋণদাতার নেকির সঙ্গে মিশানো হবে, (ঋণগ্রস্ত ব্যক্তির) নেকি না থাকলে ঋণদাতার গোনাহসমূহ ঋণী ব্যক্তির ওপর চাপানো হবে।’ (বাইহাকি, তারগিব, তারহিব)

সুতরাং মুমিন মুসলমানের উচিত, কোনো কারণে যদি কেউ ঋণগ্রস্ত হয়ে পড়ে তবে, তা পরিশোধে সর্বাত্মক চেষ্টা করা। কেননা এ অবস্থায় যদি কেউ মৃত্যুবরণ করে আর তার ঋণ পরিশোধ করা না হয় তবে তার রূহ থাকবে ঝুলন্ত। আর যদি ঋণ পরিশোধের কোনো ব্যবস্থা না হয় তবে ঋণদাতার আমলানামায় ঋণগ্রহীতার সব নেক দিয়ে দেয়া হবে।

আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে ঋণ পরিশোধ করার ব্যাপারে তালবাহানা থেকে মুক্ত থাকার তাওফিক দান করুন। ঋণ থাকলে তা মৃত্যুর আগেই পরিশোধ করার তাওফিক দান করুন। আমিন।

 কুষ্টিয়ার  বার্তা
 কুষ্টিয়ার  বার্তা
এই বিভাগের আরো খবর