মঙ্গলবার   ১০ ডিসেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ২৫ ১৪২৬   ১২ রবিউস সানি ১৪৪১

মেহেরপুরে আবারো বেড়েছে পেয়াজের দাম

নিজস্ব প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ২৫ নভেম্বর ২০১৯  

দুইদিনের ব্যবধানে মেহেরপুরে আবারো বেড়েছে পিয়াজের দাম। পাইকারি বাজারে ২০ টাকা বাড়লেও খুচরা বাজারে বিক্রি হচ্ছে ২০ থেকে ৩০ টাকা বেশি দরে। নতুন পেঁয়াজ বাজারে এলে দাম কমার সম্ভাবনা থাকলেও সেটিও আর নেই। নতুন পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ১৬০ টাকা থেকে ১৮০ টাকায়। পুরোনো দেশি পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ২৪০ টাকায়।

ব্যবসায়ীরা বলছেন, দেশী পিয়াজের আমদানি কমে যাওয়া পিয়াজের দাম বেড়ে গেছে। পিয়াজের দাম বৃদ্ধি করা হলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার কথা বলছে জেলা প্রশাসন। 

ক্রেতারা জানান, কাঁচা পিয়াজ বিক্রি করেছি ১৬০ টাকায় কয়েকদিন কিনতে পেরে ভাল লাগছিল। নতুন করে আজকে দাম বেড়ে ২১০ টাকায়। 

গাংনী উপজেলার বামন্দী গ্রামের মরিচ চাষি আমজাদ হোসেন মরিচ বিক্রি করতে এসেছেন স্থানীয় ফড়িয়াদের কাছে। তিনি বলেন, ক্ষেতে মরিচ ভালো হলেও বাজারে দাম নেই। বাজারে প্রতিকেজি মরিচের দাম ২০ টাকা। ১০ কেজি কাঁচা মরিচ বিক্রি করে এক কেজি পেঁয়াজের দাম হচ্ছে না। তার জন্য আধা কেজি পেঁয়াজ কিনেছি।

পেঁয়াজ ব্যবসায়ী বিপু জানান, দাম কমবে কমবে করে কমছে না বরং বেড়েই যাচ্ছে। আমরা বেশি দামে কিনে তো কম দামে বেচতে পারি না। এতে করে লোকসান গুনতে হবে। কেজিতে ২০ টাকা লাভে বিক্রি করতে হয়, যার ফলে দাম বেড়ে যায়।

এ ব্যাপারে জেলা প্রশাসক আতাউল গনি জানান, মেহেরপুরে পিয়াজের দাম বৃদ্ধির কোন কারন নেই। বিদেশ থেকে প্রচুর পিয়াজ আমদানি করা হয়েছে। 

এছাড়া নতুন পেঁয়াজ বাজারে উঠতে শুরু করেছে। কয়েক দিনের মধ্যে দাম কমে যাবে। কোনো ব্যবসায়ী কারসাজি করে দাম বাড়িয়ে থাকলে তার বিরুদ্ধে ভোক্তা অধিকার আইনে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

 কুষ্টিয়ার  বার্তা
 কুষ্টিয়ার  বার্তা
এই বিভাগের আরো খবর