সোমবার   ০১ মার্চ ২০২১   ফাল্গুন ১৬ ১৪২৭   ১৭ রজব ১৪৪২

 কুষ্টিয়ার  বার্তা
সর্বশেষ:
বঙ্গবন্ধুর সমা‌ধিতে আরবি বিশ্ববিদ্যালয় বঙ্গবন্ধু পরিষদের শ্রদ্ধা ভেড়ামারায় তিন দিনব্যাপী উদ্যোক্তা মেলার উদ্বোধন কুষ্টিয়ায় দুই কেজি গাঁজাসহ আটক ১ মেহেরপুরে মিনি নাইট ক্রিকেট টুর্নামেন্টের উদ্বোধন গাংনীর চেংগাড়া গ্রামে ঐতিহ্যবাহী গ্রামীন খেলাধুলা অনুষ্ঠিত
৮০

‘মালচিং পদ্ধতি’তে ক্যাপসিকাম উৎপাদনে লালটু মিয়ার সাফল্য

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৫ জানুয়ারি ২০২১  

পরিবেশবান্ধব ‘মালচিং পদ্ধতি’ব্যবহার করে বছরজুড়ে ক্যাপসিকাম উৎপাদনে  অসাধারণ সাফল্য দেখিয়েছে জীবননগর উপজেলার বৈদ্যনাথপুর গ্রামে তরুণ কৃষক লালটু মিয়া । সাধারণত এ পদ্ধতিতে ক্যাপসিকামের ফলন বছরে একবার হয়ে থাকে। তবে লালটু মিয়া বাস্তবে দেখিয়েছেন যে, বছরের যেকোনও সময় একাধিকবার ক্যাপসিকাম উৎপাদন করা যায়। তাছাড়া বাণিজ্যিক ভাবে লাভ জনক হওয়ায় ক্যাপসিকাম চাষে আগ্রহী হয়েছে অনেকে। 

জীবননগর উপজেলার বৈদ্যনাথপুর গ্রামে তরুণ কৃষক লালটু মিয়া জানান, ‘মালচিং মেথড’ ভারত ও ইসরাইলে খুবই জনপ্রিয় একটি পদ্ধতি। ইন্টারনেটের মাধ্যমে প্রথম এই পদ্ধতি সম্পর্কে জানতে পেরে তিনি চুয়াডাঙ্গা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরে যোগাযোগ করেন। তখন তারা এ পদ্ধতিতে ক্যাপসিকাম  উৎপাদনে লালটু মিয়াকে উৎসাহিত করে। এছাড়া দীর্ঘ সময় ইরানে থাকার কারণে, সেখানে ক্যাপসিকাম চাষ দেখে এ চাষের উপর তার আগ্রহ বেড়ে যায়। 

লালটু মিয়া বলেন, ‘সাধারণ পদ্ধতির চেয়ে নতুন এই পদ্ধতিতে গাছগুলো দেড়গুণ তাড়াতাড়ি বেড়ে ওঠে।’
তিনি বলেন, ‘বর্তমানে আমি ২বিঘা জমিতে ক্যাপসিকাম  চাষ করেছি এতে আমার খরচ হয়েছে বিঘা প্রতি ৮ থেকে ১০হাজার টাকা আর আমি গত কয়েকদিন দিন আগে ২৮ হাজার টাকার ক্যাপসিকাম বিক্রি করেছি এবং এখনও গাছে প্রায় ৫০ থেকে ৬০হাজার টাকার ক্যাপসিকাম  রয়েছে। তবে এটা ১২ মাসের ফসল হওয়ায় এ চাষে অল্প খরচে লাভবান হওয়া যায়।

জীবননগর উপজেলার উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা শিমুল আহম্মেদ জানান, জীবননগর উপজেলায় ১ হেক্টর জমিতে ক্যাপসিকাম  চাষ হচ্ছে এবং তরুণ চাষী লালটু মিয়া একজন সৎ ও সচেতন চাষী। সে রাসায়নিক মুক্তভাবে জৈব সার এবং জৈব বালাই নাশক ব্যবহার করে ক্যাপসিকাম চাষ করছেন।

কৃষি বিভাগ তার সব ধরনের সহযোগিতা দিচ্ছে যা আগামীতে অব্যহত থাকবে। কৃষকদের ক্যাপসিকাম চাষে উৎসাহিত করা হলে আমদানী নির্ভরতা কমার ফলে দেশের অর্থনীতিতে গুরুত্বপূর্ন অবদান রাখবে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা .

 কুষ্টিয়ার  বার্তা
 কুষ্টিয়ার  বার্তা
এই বিভাগের আরো খবর