শনিবার   ১৬ জানুয়ারি ২০২১   মাঘ ২ ১৪২৭   ০১ জমাদিউস সানি ১৪৪২

 কুষ্টিয়ার  বার্তা
সর্বশেষ:
‘মালচিং পদ্ধতি’তে ক্যাপসিকাম উৎপাদনে লালটু মিয়ার সাফল্য কুষ্টিয়ায় আট ইটভাটাকে জরিমানা মেহেরপুরে বিএনসিসির উদ্যোগে মাস্ক ও লিফলেট বিতরণ প্রতি উপজেলায় থাকবে ৭ লাখ ডোজ ভ্যাকসিন: স্বাস্থ্যমন্ত্রী বাইডেনের প্রশাসনে বাংলাদেশি বংশোদ্ভুত জাইন সিদ্দিক
২৮

ফেডারেশন কাপের মুকুট ধরে রাখলো বসুন্ধরা কিংস

প্রকাশিত: ১১ জানুয়ারি ২০২১  

ফেডারেশন কাপের ফাইনালে সাইফ স্পোর্টিং ক্লাবকে ১-০ গোলে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে ঘরোয়া ফুটবলের শক্তিশালী ক্লাব বসুন্ধরা কিংস।

বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে রবিবার (১০ জানুয়ারি) বিকেল ৪টায় শুরু হয় ম্যাচটি। দ্বিতীয়ার্ধে বসুন্ধরা কিংসকে এগিয়ে নিলেন রাউল অস্কার বেসেরা। আর্জেন্টাইন বংশোদ্ভূত চিলিয়ান এই ফরোয়ার্ডের গোলটিই শেষ পর্যন্ত গড়ে দিল পার্থক্য। সাইফ স্পোর্টিংয়ের স্বপ্ন ভেঙে ফেডারেশন কাপের মুকুট ধরে রাখল বসুন্ধরা কিংস।

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে বন্ধ থাকা ফুটবল শুরুর পর হওয়া প্রথম প্রতিযোগিতার শিরোপা স্বাদ নিল অস্কার ব্রুসনের দল।

এই মৌসুমে বসুন্ধরা কিংসের অন্যতম ভরসা আর্জেন্টাইন স্ট্রাইকার রাউল বেসেরা। ফেডারেশন কাপের প্রায় প্রতিটি ম্যাচেই নিজেকে প্রমাণ করেছেন। ফাইনালে হয়ে থাকলেন জয়ের নায়ক।

ফেডারেশন কাপে এ নিয়ে তৃতীয়বারের মতো ফাইনাল খেলার অভিজ্ঞতা হলো বসুন্ধরার। পক্ষান্তরে সাইফ প্রথমবার উঠলেও ফাইনালটিকে স্মরণীয় করে রাখতে পারলো না। সন্তুষ্ট থাকতে হলো রানার্সআপ হয়েই।

ফাইনালের দিন একাদশে দুটি পরিবর্তন রেখে বসুন্ধরা কিংস মাঠে নেমেছিল। আবাহনীর বিপক্ষে খেলা মাহবুবুর রহমান সুফিল ও বিপলু আহমেদ ছিলেন না। তাদের জায়গায় একাদশে ফিরেছেন মতিন মিয়া ও মোহাম্মদ ইব্রাহিম। তার পরেও প্রথমার্ধে তারা একচেটিয়া আধিপত্য বিস্তার করতে পারেনি। উল্টো তাদের চোখে চোখ রেখে খেলেছে সাইফ স্পোর্টিং। আক্রমণে দুই দলই ছিল সমানে সমান।

ম্যাচের ৪ মিনিটে তপু বর্মণের গোল অফ সাইডের কারণে বাতিল না হলে তখনই এগিয়ে যেতে পারতো বসুন্ধরা। ৪-১-৪-১ ফর্মেশনে খেলে ১৬ মিনিটে সতীর্থের থ্রু ধরে ডান দিক দিয়ে আক্রমণে ওঠা বিশ্বনাথ ঘোষের শট গোলকিপার পাপ্পু হোসেন ফিস্ট করে ফিরিয়েছেন। এর একটু পর আর্জেন্টাইন স্ট্রাইকার বেসেরার শট যায় দূরের পোস্ট দিয়ে।

সাইফ ৪-৩-২-১ ফর্মেশনে এরপরই ঘুরে দাঁড়াতে চেষ্টা করে। একাধিক আক্রমণও হয়েছে। ১৯ মিনিটে নাইজেরিয়ার স্ট্রাইকার ইকেচুকু কেনেথের ব্যাক পাস থেকে স্বদেশী জন ওকোলির শট ক্রস বারের ওপর দিয়ে গেলে হতাশ হতে হয় তাদের। পরের মিনিটে তরুণ ফয়সাল আহমেদ ফাহিম বাঁ প্রান্ত দিয়ে বক্সে ঢুকে একক প্রচেষ্টায় লক্ষ্যে জোরালো শট নিলেও গোলকিপার জিকো বেরিয়ে এসে তা রুখে দিয়েছেন।

অবশেষে গতবারের চ্যাম্পিয়ন বসুন্ধরা কাঙ্ক্ষিত গোল পেয়েছে বিরতির পর। ৫২ মিনিটে ব্রাজিলিয়ান রবিনিয়োর পাসে বসুন্ধরাকে এগিয়ে নেন রাউল বেসেরা। বাম প্রান্ত দিয়ে বক্সে ঢুকে এই আর্জেন্টাইন গায়ের সঙ্গে সেঁটে থাকা প্রতিপক্ষের এক ডিফেন্ডারের প্রতিরোধ ভেঙে দূরের পোস্ট দিয়ে লক্ষভেদ করেছেন। এই নিয়ে ফেডারেশন কাপে তার গোল সংখ্যা দাঁড়ালো ৫টি। সাইফের নাইজেরিয়ান ইকেচুকু কেনেথেরও তাই।

ম্যাচে ফেরার চেষ্টা করেছিল সাইফও। পর পর দুটি সুযোগ পেয়ে আর একটু হলেই ম্যাচে সমতা ফেরাতে যাচ্ছিলেন পল পুটের দল। কিন্তু ইকেচুকুর দুটি প্রচেষ্টাই ব্যর্থ হয়েছে। ৬৯ মিনিটে ইকেচুকুর জোরালো শট গোলকিপার জিকো কর্নারের বিনিময়ে ফিরিয়েছেন। আর ৭৩ মিনিটে এই স্ট্রাইকারের নিচু শট গেছে পোস্ট ঘেঁষে।

 কুষ্টিয়ার  বার্তা
 কুষ্টিয়ার  বার্তা
এই বিভাগের আরো খবর