সোমবার   ০১ মার্চ ২০২১   ফাল্গুন ১৬ ১৪২৭   ১৭ রজব ১৪৪২

 কুষ্টিয়ার  বার্তা
সর্বশেষ:
বঙ্গবন্ধুর সমা‌ধিতে আরবি বিশ্ববিদ্যালয় বঙ্গবন্ধু পরিষদের শ্রদ্ধা ভেড়ামারায় তিন দিনব্যাপী উদ্যোক্তা মেলার উদ্বোধন কুষ্টিয়ায় দুই কেজি গাঁজাসহ আটক ১ মেহেরপুরে মিনি নাইট ক্রিকেট টুর্নামেন্টের উদ্বোধন গাংনীর চেংগাড়া গ্রামে ঐতিহ্যবাহী গ্রামীন খেলাধুলা অনুষ্ঠিত
৬৭

‘নগদ’-এর মাধ্যমেই বিতরণ হবে ৭৫ শতাংশ নিরাপত্তা ভাতা

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৪ জানুয়ারি ২০২১  

সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচির আওতায় প্রতি বছর দুস্থদের মাঝে হাজার হাজার কোটি টাকার ভাতা বিতরণ করে সরকার। এখন থেকে কোনো মাধ্যম ছাড়াই যাতে এই টাকা সরাসরি উপকারভোগীদের হাতে পৌঁছে, সে লক্ষ্যে মোবাইল ফাইনান্সিয়াল সার্ভিসের মাধ্যমে জিটুপি পদ্ধতিতে ভাতা বিতরণ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।  

বৃহস্পতিবার (১৪ জানুয়ারি) গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে তিনি এই কার্যক্রমের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন। 

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচি ভাতার ৭৫ শতাংশ টাকা বাংলাদেশ ডাক বিভাগের ডিজিটাল ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিস ‘নগদ’ এর মাধ্যমে প্রদান করা হবে। এর ফলে এখন থেকে সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচির আওতায় বয়স্ক ভাতা, বিধবা ও স্বামী নিগৃহীতা ভাতা, প্রতিবন্ধী ভাতা এবং প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের জন্য শিক্ষা উপবৃত্তি মোবাইল আর্থিক প্রতিষ্ঠান ‘নগদ’ এর মাধ্যমে সরাসরি উপকারভোগীদের হাতে পৌঁছে যাবে। এতে তাদের আর ব্যাংকে গিয়ে দীর্ঘ লাইনে দাঁড়িয়ে টাকা তুলতে হবে না। তারা বাড়ির আশপাশের যেকোনো নগদ এজেন্ট থেকে ভাতার টাকা উত্তোলন করতে পারবেন।

সংশ্লিষ্টদের মতে, ক্যাশ আউট চার্জ কম থাকা, গ্রাহকের পছন্দের বিষয়টি বিবেচনা, নিরাপত্তা বেশি থাকা, খুব দ্রুত জনপ্রিয়তা বৃদ্ধি পাওয়া, গ্রাহক সেবার মান সবকিছু বিবেচনায় নিয়ে নগদের মাধ্যমে সরকার জনগণের কাছে ভাতা পৌঁছে দিতে সিদ্ধান্ত নিয়েছে। মূলত দেশের প্রান্তিক জনগণের কথা মাথায় রেখেই সরকার নগদের মাধ্যমে সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনীর ভাতা সর্বোচ্চ ৭৫ শতাংশ দেওয়ার পরিকল্পনা নিয়েছে।

সরকার থেকে ব্যক্তিকে (জি-টু-পি) পাঠানো এই সহায়তা কার্যক্রমে ইতিমধ্যে ২১টি জেলার ৭৭টি উপজেলায় ১২ লাখ ৩৭ হাজার উপকারভোগীর কাছে এজেন্ট ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে ভাতার অর্থ বিতরণ করেছে সরকার। মোট ৮৮ লাখ ৫০ হাজার উপকারভোগীর বাকি ৭৬ লাখ ১৩ হাজার উপকারভোগীকে টাকা পৌঁছে দেবে ‘নগদ’।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, করোনা মহামারির সময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ৫০ লাখ অসহায় পরিবারকে এমএফএস-এর মাধ্যমে ঈদ উপহার বিতরণ করেন যার মধ্যে ১৭ লাখ পরিবারের ‘নগদ’-এর মাধ্যমে উপহার পায়। এ কারণে সবচেয়ে নিরাপদে সরকারি ভাতা জনগণের মাঝে বিতরণের ক্ষেত্রে ‘নগদ’ আজ এক উদাহরণের নাম। সরকারের আস্থার প্রতিদান হিসেবে তাই দুস্থদের মাঝে ভাতা বিতরণে তিন-চতুর্থাংশ ভাতা ‘নগদ’ প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে বিতরণ করা হচ্ছে।

গুরুত্বপূর্ণ তথ্য হচ্ছে, সরকারি এই ভাতা ক্যাশ আউট করতে উপকারভোগীকে অতিরিক্ত কোনো অর্থ খরচ করতে হবে না। সরকার মোবাইল ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিস অপারেটর ‘নগদ’-কে প্রতি হাজারে সাত টাকা ক্যাশ আউট চার্জ দেবে, বাকি টাকা ‘নগদ’ বহন করবে। 

কার্যক্রম উদ্বোধনের পর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা চাঁদপুর, পিরোজপুর, লালমনিরহাট ও নেত্রকোনা জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে সংযুক্ত হয়ে উপকারভোগীসহ জনপ্রতিনিধি ও সরকারি কর্মকর্তাদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী নুরুজ্জামান আহমেদ, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মো. আশরাফ আলী খান খসরু, অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন প্রধানমন্ত্রীর মুখ্যসচিব ড. আহমেদ কায়কাউস এবং স্বাগত বক্তব্য দেন সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সচিব মোহাম্মদ জয়নুল বারী।

 কুষ্টিয়ার  বার্তা
 কুষ্টিয়ার  বার্তা
এই বিভাগের আরো খবর