শুক্রবার   ২৩ অক্টোবর ২০২০   কার্তিক ৭ ১৪২৭   ০৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

 কুষ্টিয়ার  বার্তা
৮৪

দৌলতপুরে গ্রামীণ ব্যাংকের মাঠকর্মীকে হত্যায় গ্রেফতার ২

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৩ অক্টোবর ২০২০  

কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলায় নুরুজ্জামান নান্টু (৩৮) নামে গ্রামীণ ব্যাংকের এক মাঠকর্মীকে হত্যার ঘটনায় দুই আসামিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গত শুক্রবার (২ অক্টোবর) উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদেরকে গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন- প্রধান আসামি মোমিন দফাদারের স্ত্রী হিরা (৩০) ও গোলাবাড়িয়া এলাকার হাশেম সরদারের ছেলে হেলাল (৩২)।

পুলিশ জানায়, বৃহস্পতিবার রাতে উপজেলার ফিলিপনগর ইউনিয়নের মণ্ডলপাড়া গ্রামের একটি বাড়ি থেকে ব্যাংক কর্মকর্তা নুরুজ্জামান নান্টুর লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। ওই বাড়িতেই তাকে গলা কেটে হত্যা করা হয়। নিহত নুরুজ্জামান নান্টু দৌলতপুর উপজেলার হোসেনাবাদ এলাকার গ্রামীণ ব্যাংকের স্থানীয় শাখায় ফিল্ড সুপারভাইজার পদে কর্মরত ছিলেন। তিনি এ উপজেলার খলিসাকুণ্ডি ইউনিয়নের কামালপুর এলাকার মৃত কাজি মোতালেব হোসেনের ছেলে।

ঘটনার পর নিহতের ভাই বাদী হয়ে মোমিন দফাদার ও তার স্ত্রীসহ বেশ কয়েকজনকে আসামি করে দৌলতপুর থানায় মামলা করেন। এরপর আসামিদের গ্রেফতারে ব্যাপক অভিযান চালায় পুলিশ। এ সময় মোমিন দফাদারের স্ত্রীকে তার এক আত্মীয়ের বাড়ি থেকে এবং গোলাবাড়িয়া এলাকার নিজ বাড়ি থেকে হেলালকে গ্রেফতার করে পুলিশ। 

এ বিষয়ে দৌলতপুর থানার ওসি জহুরুল আলম জানান, মোমিনের বাড়ির টয়লেট থেকে নুরুজ্জামানের লাশ উদ্ধার করা হয়। মোমিনের স্ত্রী হিরার নামে গ্রামীণ ব্যাংকের ঋণ নেয়া ছিল। কিন্তু তারা দীর্ঘদিন ধরে কিস্তির টাকা দিতে ঝামেলা করছিলেন বলে ব্যাংক কর্তৃপক্ষ পুলিশকে অবগত করেন। ঋণের কিস্তির টাকা আদায়কে কেন্দ্র করে সৃষ্ট দ্বন্দ্বের জেরে এই হত্যার ঘটনা ঘটতে পারে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করছে পুলিশ।

ওসি আরও জানান, ঘটনার পর থেকে প্রধান আসামি মোমিন দফাদার পলাতক রয়েছেন। মোমিনসহ অপর আসামিদের গ্রেফতারে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে। দ্রুত সময়ের মধ্যে তাকে গ্রেফতার করা সম্ভব হবে বলেও আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

 কুষ্টিয়ার  বার্তা
 কুষ্টিয়ার  বার্তা
এই বিভাগের আরো খবর