মঙ্গলবার   ১০ ডিসেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ২৬ ১৪২৬   ১২ রবিউস সানি ১৪৪১

চুয়াডাঙ্গায় বাজার মনিটরিং করলেন জেলা প্রশাসক

নিজস্ব প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ২ ডিসেম্বর ২০১৯  

চুয়াডাঙ্গায় অস্থিতিশীল পেঁয়াজ এবং চালের বাজার মনিটরিং করেন জেলা প্রশাসক নজরুল ইসলাম সরকার। 

চুয়াডাঙ্গায় পেঁয়াজের মূল্যবৃদ্ধি এবং এক সপ্তাহের ব্যবধানে বাজারে হঠাৎ করেই চালের মূল্য বৃদ্ধি পাওয়ায় ০২ ডিসেম্বর (সোমবার) বেলা ১২ টার দিকে তিনি চুয়াডাঙ্গা বড় বাজারের কাঁচা বাজার এবং রেল স্টেশন সংলগ্ন চালের বাজার পরিদর্শনে বের হন। 

এ সময় তিনি ব্যবসায়ী এবং ক্রেতাদের সঙ্গে বাজার পরিস্থিতি নিয়ে কথা বলেন। সবার কথা শুনে তিনি ব্যবসায়ীদের দোকানে মূল্য তালিকা টাঙিয়ে রাখার নির্দেশ দিয়ে কয়েকজন ব্যাবসায়ীর নিকট থেকে মালামাল কেনার কাগজ-পত্র পরীক্ষা করেন। 

এদিকে বাজার ঘুরে দেখা যায়, ২’শ থেকে ২’শ ১০ টাকায় পেঁয়াজ কিনে খুচরা ও পাইকারি বাজারে ২’শ ১০ থেকে ২’শ ৪০ টাকা কেজি দরে বিক্রি করছেন আড়ৎদার ও ব্যবসায়ীরা। পাইকারি ২৮ থেকে ৩০ টাকা কেজি দরে কেনা মোটা চাল বিক্রি হচ্ছে ৩৫ থেকে ৪০ টাকায়। চিকন চালের বাজার আরো চড়া। ৪৩ থেকে ৪৫ টাকা কেজি দরে পাইকারি কেনা চিকন চাল বিক্রি হচ্ছে ৫০ থেকে ৫৫ টাকা কেজি দরে। তবে মূল্যবৃদ্ধির কারণ সম্পর্কে সঙ্গত কোন উত্তর নেই খুচরা ও পাইকারি ব্যবসায়ীদের কাছে। তাদের মতে, সারাদেশের বাজার যেমন চলছে, আমাদেরও তেমন।

বাজার মনিটরিং কার্যক্রমে অংশ নেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) খোন্দকার ফরহাদ আহমদ, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোহাম্মদ ইয়াহ্ ইয়া খান, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মনিরা পারভীন, জেলা বাজার কর্মকর্তা শহিদুল ইসলাম, ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর চুয়াডাঙ্গা জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক সজল আহমেদ, জেলা দোকান মালিক সমিতির সভাপতি হাজী আসাদুল হোসেন জোয়ার্দ্দার লেমন, সিনিয়র সহ সভাপতি আব্দুল কাদের জগলু প্রমুখ।

 কুষ্টিয়ার  বার্তা
 কুষ্টিয়ার  বার্তা
এই বিভাগের আরো খবর