বুধবার   ১১ ডিসেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ২৬ ১৪২৬   ১৩ রবিউস সানি ১৪৪১

৫৭

কোমর-পিঠে ব্যথার ঘরোয়া চিকিৎসা

লাইফস্টাইল ডেস্ক:

প্রকাশিত: ২৭ নভেম্বর ২০১৯  

অনেকের পিঠ ও কোমরে প্রচণ্ড ব্যথা হয়ে থাকে। পিঠ ও কোমরের ব্যথা সারাতে অনেকে ওষুধ খেয়ে থাকেন। তবে আপনি জানেন কি– এ ব্যথা ঘরোয়া চিকিৎসাতেই ভালো হয়?

অফিসে অনেক সময়ই একটানা চেয়ারে বসে কাজ করতে করতে মেরুদণ্ডের হাড়ে ব্যথা হয়। বসে কাজ করার সময় মেরুদণ্ডের জোর ও পেশিগুলোর যে শক্তি প্রয়োজন হয়, তার অনেকটাই হারিয়ে ফেলি আমরা। পরিচর্যার অভাবে বয়স বাড়ার অনেক আগেই ব্যথাজনিত সমস্যায় ভুগতে থাকি।

ব্যথাকে নিয়ন্ত্রণে রেখে অসুখ কমানোর আধুনিক চিকিৎসা ‘পেন ম্যানেজমেন্ট’। সেই বিভাগেরই বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক দেবাঞ্জলি রায়ের মতে, ক্রনিক এই সমস্যার জন্য নিয়মিত ব্যায়াম, ওষুধ এ পর্যাপ্ত ঘুম কার্যকরী। বেদনানাশক ওষুধ খেয়ে দিনের পর দিন ব্যথাকে নিয়ন্ত্রণ করে যাওয়া নিছক বোকামি।

আসুন জেনে নিই কোমর ও পিঠে ব্যথার ঘরোয়া চিকিৎসা-

১. শরীরের গড়ন ও ধরন বুঝে জেনে নিন প্রয়োজনীয় ব্যায়াম। এ ছাড়া দৌড়নো, জগিং কিছু স্ট্রেচিং এক্সারসাইজ ব্যথা সারাতে ও পেশির জোর বাড়াতে বিশেষ কাজে আসে।

২. ব্যথা হলে ও ঠাণ্ডা বা গরম সেঁক দিন। একবার হট ওয়াটার ব্যাগ ব্যথার জায়গায় ধরে থাকুন ১৫ সেকেন্ডের মতো। তার পর আবার সেখানে ১৫ সেকেন্ডের জন্য কোল্ড ব্যাগ সেঁক দিন। এভাবে মিনিট ১০-১৫ সেঁক দেয়ার ফলে শরীরে রক্ত সঞ্চালন বাড়বে, পেশিকে শিথিল করবে। আর ব্যথা কমবে।

৩. ক্রনিক ব্যথায় যারা ভোগেন, তারা প্রতিদিন প্রায় ৭-৮ ঘণ্টা নিয়ম করে ঘুমান। ঘুমানোর সময় শোবার ধরনও ঠিক রাখুন।

৪. কোমর ও পিঠে ব্যথা প্রায়ই হলে জুতা বদলাতে হবে। চিকিৎসকের পরামর্শ মেনে জুতা ব্যবহার করুন।

৫. পাতে হাড় শক্ত করার খাবার রাখুন। ভিটামিন ডি, ভিটামিন বি১২, ক্যালসিয়াম ও ম্যাগনেশিয়ামের পুষ্টিগুণে সমৃদ্ধ খাবার হাড় ও পেশির জোর বাড়ায়।

 কুষ্টিয়ার  বার্তা
 কুষ্টিয়ার  বার্তা