রোববার   ০৯ আগস্ট ২০২০   শ্রাবণ ২৪ ১৪২৭   ১৯ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

 কুষ্টিয়ার  বার্তা
৪৭

এই তীব্র গরমেও হালকা গরম পানি আপনার শরীরের পক্ষে ভীষণ উপকারী!

লাইফস্টাইল ডেস্ক:

প্রকাশিত: ৩০ মে ২০২০  

গ্রীষ্মের মাঝে তীব্র গরমে যখন মানুষ গলা ভেজানোর জন্য ঠান্ডা পানির খোঁজ করে, তখন উল্টো হালকা গরম পানি পান করতে বলা হচ্ছে দেখে অবাক হচ্ছেন নিশ্চয়ই! সত্যিটা হলো এই হালকা গরম পানি আপনার শরীরের পক্ষে ভীষণ উপকারী। সারা বছর ধরে গরম পানি পান করলে তা আপনার শরীরের আর্দ্রতা ধরে রাখতে সাহায্য করে। নিজেকে ফিট রাখার জন্য হালকা গরম পানি আপনার স্বাস্থ্যের সেরা ডোজ হতে পারে।

আমাদের দেহের ৭৫ শতাংশ তরল দিয়ে গঠিত এবং আরও ভালো কার্যকারিতার জন্য শরীরের প্রয়োজন ইলেক্ট্রোলাইটের ভারসাম্য বজায় রাখতে হবে। সুতরাং, জেনে নিন কেন নিয়মিত গরম পানি পান করবেন, এটি শরীরে কীভাবে কাজ করে এবং পানি আরও পুষ্টিকর কর তুলতে করণীয়-

মহামারি করোনা ভাইরাসের এই সময়ে কেন এটি অপরিহার্য?

বিশ্বব্যাপী ছড়িয়েছে করোনা ভাইরাস মহামারিজনিত ভীতি। এটি দিনদিন বেড়েই চলেছে এবং এখনও পর্যন্ত আবিষ্কার হয়নি কোনো প্রতিষেধক। তবে দীর্ঘ লকডাউনের পরে পুরো বিশ্ব যখন পদক্ষেপ নিচ্ছে পূর্বের কর্মব্যস্ততায় ফিরে যাওয়ার তখন শক্তিশালী বিপাক এবং রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা তৈরি করা জরুরি।

খুব সকালে গরম পানি পান করলে তা শরীরের সঠিক ইলেক্ট্রোলাইট ভারসাম্য বজায় রাখতে এবং দেহে উপস্থিত টক্সিনকে ডিটক্সাইফাই করতে সহায়তা করে। এছাড়াও যদি আপনি মৌসুমী ফ্লু, সর্দি এবং কাশির ঝুঁকিতে থাকেন তবে সারাদিন অল্প অল্প করে গরম পানি পান করুন। এতে কফ-সর্দি জমে থাকলে তা দূর হবে।

দুর্দান্ত প্রতিকার

বুকে দীর্ঘ সময় কফ জমে থাকলে তা শ্বাসযন্ত্রের সিস্টেমকে প্রভাবিত করতে পারে। শ্লেষ্মা জমার কারণে তা ফুসফুসের বায়ু উত্তরণকে প্রদাহ দেয়। তাই প্রাকৃতিকভাবে শ্লেষ্মা গলিয়ে শরীর থেকে বের করে দেয়ার সবচেয়ে ভালো উপায় হলো সারাদিন হালকা গরম পানি পান করা। তা ছাড়া হালকা গরম পানি গলা ও সাইনাসের সমস্যা থেকে মুক্তি পেতেও সহায়তা করে। বুকে কফ জমাট বাঁধলে হালকা গরম পানি এভাবে খেতে পারেন-

১ লিটার হালকা গরম পানি নিন। তার সঙ্গে একটি লেবু যোগ করুন। এবার ২ চা চামচ মধু নিন। সবকিছু ভালোভাবে মিশিয়ে নিন। এরপর সারাদিন ধরে অল্প অল্প পান করুন।

মধু এবং লেবু উভয়ই ভিটামিন সি, ডি, ই, কে এবং বি কমপ্লেক্স এবং বিটা ক্যারোটিন জাতীয় পুষ্টিতে ভরপুর, যা রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানোর পাশাপাশি ঠান্ডা, কাশি এবং ফ্লুতে চিকিত্সা করতে সহায়তা করে।

পানীয়কে আরও শক্তিশালী করুন

প্রতিদিন সকালে গরম পানি পান করলে তা হজম ব্যবস্থা থেকে বিষাক্ত পদার্থগুলো বের করে দিতে সাহায্য করে। হালকা গরম পানি এন্ডোক্রাইন সিস্টেমের সঠিক ক্রিয়ায় সহায়তা করে। এর কারণ হলো হালকা গরম পানি শরীরের তাপমাত্রা বাড়ায়। ফলস্বরূপ বিপাকের হার বাড়ে, যা শরীর থেকে বিষাক্ত পদার্থ বের করতে সহায়তা করে।

১ লিটার হালকা গরম পানি নিন। এর সঙ্গে আধা এক চা চামচ চুনের রস, ২-৩টি তুলসি পাতা ও ২-৩ আদা টুকরো আদা নিন।

এই মিশ্রণটি শরীর থেকে বিষাক্ত পদার্থগুলো বের করে আনে এবং হজমশক্তি উন্নত করে। পাশাপাশি বিপাকের হার উন্নত করতেও সহায়তা করবে। তবে আদা খুব বেশি খাবেন না। পানির সঙ্গে সামান্যই যুক্ত করুন।

ওজন কমাতে সাহায্য করে

আপনি যদি ফিটনেসের ক্ষেত্রে সচেতন থাকেন তবে পানিই হতে পারে আপনার সেরা সঙ্গী। সকালে হালকা গরম পানি পান করলে শরীর থেকে বিষাক্ত পদার্থগুলো বের হয়ে যায়। এটি শরীরের তাপমাত্রা বাড়ায় যা বিপাকের হারকে উন্নত করে। হালকা গরম পানি অন্ত্রের খাদ্য অণুগুলো ভাঙতে সাহায্য করে। খাবার থেকে ভালোভাবে পুষ্টির শোষণের পাশাপাশি হজমে উন্নতি করতে সহায়তা করে। এটি ওজন নিয়ন্ত্রণেও কার্যকরী। হালকা গরম পানির সঙ্গে এই ভেষজ মিশ্রণটি আপনার বাড়তি ওজন কমাতে সাহায্য করবে-

১ লিটার হালকা পানি নিন। এবার তার সঙ্গে ১ চা চামচ জিরা, ১ চা চামচ ধনিয়া ও ১ চা চামচ মেথি মেশান।

এই মিশ্রণটি ভালোভাবে ফুটিয়ে নিন। পানীয়টি সারাদিন ধরে অল্প অল্প করে খান। এই পানীয়টি কেবল ওজনই কমায় না, সেইসাথে শরীর থেকে বিষাক্ত পদার্থগুলোও বের করে দেয়।

 কুষ্টিয়ার  বার্তা
 কুষ্টিয়ার  বার্তা